বিশ্বব্যাপী খাদ্য অপচয়ের বিস্ময়কর তথ্য


বিশ্বে প্রতি বছর মানুষ ৯৩ কোটি টন খাদ্যের অপচয় করছে, যেখানে বিশ্বব্যাপী উৎপাদিত খাদ্যের মজুদ ৫৩০ কোটি টন। জাতিসংঘের পরিবেশ বিষয়ক কর্মসূচি প্রকাশিত খাদ্য অপচয় সূচক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এই প্রতিবেদনটি খাদ্য অপচয় নিয়ে এ যাবৎকালের সবচেয়ে বিস্তৃত প্রতিবেদন। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিশ্বে প্রতিবছর একজন মানুষ গড়ে ১২১ কেজি খাদ্য অপচয় করে। এর মধ্যে ঘরবাড়িতে ৭৪ কেজি, হোটেল বা রেস্টুরেন্টে ৩২ কেজি আর রিটেইল বা খুচরা দোকানে ১৫ কেজি খাদ্য। এই হিসেবে, ভোক্তাদের কাছে যাওয়া মোট ১৭ শতাংশ খাদ্য বাড়ি, খুচরা দোকান, রেস্তোরাঁ কিংবা অন্যান্য খাদ্য সেবা প্রতিষ্ঠানের ডাস্টবিনে ফেলা হয়েছে। আগে ভাবা হতো, কেবল ধনী দেশগুলোতেই খাদ্য অপচয় হয়। তবে জাতিসংঘের এই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিস্ময়করভাবে দেখা গেছে, প্রায় সব দেশেই খাদ্য অপচয়ের মাত্রা সমান। এমনকি আফ্রিকার দরিদ্র দেশগুলোও রয়েছে এই তালিকায়। যেসব দেশের মানুষ সবচেয়ে বেশি খাদ্য অপচয় করে তার প্রথমে রয়েছে নাইজেরিয়া (মাথাপিছু ১৮৯ কেজি), দ্বিতীয় অবস্থানে রোয়ান্ডা (মাথাপিছু ১৬৪ কেজি), তৃতীয় অবস্থানে গ্রীস (মাথাপিছু ১৪২ কেজি)। উল্লেখ্য, বাংলাদেশে একজন ব্যক্তি প্রতিবছর বাড়িতে গড়ে ৬৫ কেজি খাদ্য অপচয় করে থাকে। অথচ এক হিসেবে দেখা যায়, বিশ্বের ৮০ কোটি মানুষ ক্ষুধা আর অপুষ্টিতে ভোগে। জাতিসংঘ বলছে, বিশ্বে প্রতিবছর প্রায় ১ ট্রিলিয়ন ডলার মূল্যের খাবারের অপচয় হয়।