গ্রন্থ পরিচিতি-৬ : ‘মওদূদী ছাহেব আহলেহাদীছ আলেমদের দৃষ্টিতে’

আল-ইতিছাম ডেস্ক

ভূমিকা :

ইসলামকে জেনে কিংবা না জেনে যারা জনগণকে গোমরাহ করেছেন, তারা দু’ভাবে এমনটি করেছেন: ১. সরাসরি ইসলামের বিকৃতি সাধন করেছেন। ২. স্লো পয়জনিং তথা ধীরে ধীরে ইসলামের বিকৃতি সাধন করেছেন।

যারা ধীরে ধীরে চতুরতার সাথে ইসলামের বিকৃতি ঘটিয়েছেন, তাদের একজন হলেন মওদূদী ছাহেব। তিনি স্বেচ্ছায় এমনটি করেছেন তা আমরা দাবি করছি না। জ্ঞানের ঘাটতির কারণেও এমনটা হতে পারে। তার দ্বারা উপমহাদেশের অনেক সাধারণ মুসলিম প্রভাবিত হয়েছেন। এ সকল সরল-সোজা ধর্মপ্রাণ মুসলিমরা মওদূদী ছাহেবকে নবীর স্থানে বসিয়ে দিয়েছেন। তারা কোনোভাবেই মওদূদী ছাহেবের ভুল আছে বলে মানতে চান না। তারা তাফসীর, হাদীছ, ফৎওয়া সব ক্ষেত্রেই মওদূদী ছাহেবকে সর্বোচ্চ পর্যায়ের মূল্যায়ন করে থাকেন। ফলে তাদের জ্ঞাতার্থে আজকের নিবন্ধে একটি বইয়ের পরিচিতি তুলে ধরা হলো-

বইয়ের নাম :

মওদূদী ছাহেব আহলেহাদীছ আলেমদের দৃষ্টিতে’। এটি উর্দূ ভাষায় রচিত। প্রণয়ন করেছেন ‘হাকীম মওদূদ’ ছাহেব। লেখক এই গ্রন্থে বড় মাপের আহলেহাদীছ আলেমদের মন্তব্যগুলো একত্র করেছেন। এটি পাকিস্তানের গুজরানওয়ালার ‘মাকতাবা হাফিযিয়্যা’ হতে ১৯৭৮ সনে প্রকাশিত হয়েছে। আল-হামদুলিল্লাহ।

যাদের মন্তব্য সংকলিত হয়েছে :

(১) ফাতেহে কাদিয়ানিয়াত আল্লামা আবুল ওয়াফা ছানাউল্লাহ অমৃতসরী (রহি.)।

(২) মারকাযী জমঈয়তে আহলেহাদীছ পাকিস্তানের সাবেক আমীর শায়খুল হাদীছ মাওলানা হাফেয মুহাম্মাদ ছাহেব।

(৩) মাওলানা আতাউল্লাহ হানীফ ভূজিয়ানী (রাহি.)।

(৪) শায়খুল হাদীছ ওয়াল কুরআন মাওলানা মুহাম্মাদ ইসমাঈল সালাফী (রাহি.)।

(৫) আল্লামা হাফেয আব্দুল্লাহ রোপড়ী (রাহি.) সহ আরও অনেক বর্ষীয়ান আহলেহাদীছ আলেমের বক্তব্য এখানে একত্র করা হয়েছে।

যে বিষয়গুলো স্থান পেয়েছে :

ফেরেশতা, দাড়ি, ঈসা (আ.)-এর জীবিত আসমানে আরোহণ করা, কানা দাজ্জাল, ইংলিশ স্টাইলে মাথার চুল কাটা, আরকানে ইসলাম, নারীদের তালাক প্রদানের অধিকার থাকা, মুত‘আ বিবাহ জায়েয হওয়া ইত্যাদি বিষয়ে মওদূদী ছাহেবের ভ্রান্ত আক্বীদা ও মাসলাকের আলোচনা করা হয়েছে। এ ছাড়াও তার কিছু তাফসীর বিষয়ক ভুলও আলোচিত হয়েছে।

উপসংহার :

৭৫ পৃষ্ঠার এই বইটিতে (বাংলা অনুবাদ প্রকাশিতব্য) অনেক মূল্যবান তথ্য সংযোজিত হয়েছে, যা গবেষকদের জন্য অত্যন্ত সুফলদায়ক। এ ছাড়াও সাধারণ জনতার জন্যও এতে রয়েছে ইলমী খোরাক। নিরপেক্ষ দৃষ্টিতে এটি অধ্যয়ন করলে ইনশাআল্লাহ অনেকেই গোমরাহী হতে মুক্তি পাবে। আল্লাহ আমাদেরকে হেদায়াত গ্রহণ করতে উৎসাহী করুন এবং তাঁর পথে চলার তাওফীক্ব দান করুন। আমীন!