৬ মাসে ৬৩০ নারী ধর্ষণের শিকার

ক্যালেন্ডারের পাতা উল্টালেই দেখা যায় গত কয়েক মাসে খুন, ধর্ষণের অসংখ্য নৃশংশ ঘটনা ঘটেছে। মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের নির্যাতন সংক্রান্ত প্রকল্পের তথ্য অনুযায়ী, সারা দেশে ১১টি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থাপিত ১১টি ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) গত আড়াই বছরে ৩৮১২৪ জন নারী ভর্তি হয়েছে। এর মধ্যে ১১৪২৮ জনই যৌন পীড়নের শিকার হয়েছে। ২০১৭ সাল থেকে এ বছরের জুলাই পর্যন্ত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতেই চিকিৎসা নিয়েছে ৩৬০১ জন নারী ও শিশু। জাতীয় কণ্যাশিশু অ্যাডভোকেসি ফোরামের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৮ সালে ৫৭১ শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে আর চলতি বছরের প্রথম ছয় মাসেই হয়েছে ৪৯৬ জন। চলতি বছরের ছয় মাসে ৩৯৯ শিশু ধর্ষণ ও ধর্ষণচেষ্টার শিকার হয়েছে। ধর্ষণের পর মৃত্যু হয়েছে ২৬ শিশুর। ২০১৮ সালে পুরো বছরে ৩৫৬ শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছিল। এর মধ্যে মারা যায় ২২ জন। আইন ও সালিশ কেন্দ্রের তথ্য মতে, ২০১৮ সালে মোট ধর্ষণের ঘটনা ঘটে ৭৩২টি। এর মধ্যে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয় ৬৩ জনকে। ধর্ষণচেষ্টার পর হত্যা করা হয়েছে তিন নারীকে। দলবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে ২০৩টি। শিশু ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে ২৮১টি। গত জুলাই পর্যন্ত সাত মাসে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে ৭৯১টি। এ সংখ্যা আগের এক বছরের চেয়েও বেশি। ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে ৪৬ জনকে। ২০১৭ সালে ধর্ষণের মোট সংখ্যা ছিল ৮১৮ এবং ২০১৬ সালে ৭২৪টি। বাংলাদেশ শিশু অধিকার ফোরামের তথ্যানুযায়ী, ২০১৭ সালের চেয়ে ২০১৮ সালে শিশু ধর্ষণ-গণধর্ষণ বেড়েছে কমপক্ষে ৩৪ শতাংশ। এ বছর এই পরিসংখ্যান আরো অনেক বেড়ে যাবে। অপরাধ বিষয়ে পুলিশ সদর দপ্তরের এক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, এ বছরের প্রথম ৬ মাসে সারা দেশে নারী ও শিশু নির্যাতন দমনের মামলা হয়েছে ১৫৩৯টি এবং হত্যা মামলা হয়েছে ৬৫১টি।

হলি আর্টিজানের ৭ জঙ্গির ফাঁসি

দেশের ইতিহাসে নযিরবিহীন কূূটনৈতিক জোন গুলশানের হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় ভয়াবহ জঙ্গি হামলার ঘটনায় পুলিশের দায়ের করা মামলায় ৭ জনকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। অভিযুক্ত একজনকে বেকসুর খালাস দেয়া হয়েছে। ৫১ কার্যদিবস শেষে এ রায় প্রদান করা হয়েছে। এর আগে আদালতে তোলার সময় আসামি আসলাম হোসেন ভি-চিহ্ন দেখান। তাদের মধ্যে অধিকাংশের মুখেই হাসি ছিল। আসামি জাহাঙ্গীর আলম ওরফে রাজীব গান্ধীও হাসিমুখে ছিলেন। রায় শুনে তাদের কারো চেহারাতেই অনুশোচনার কোনো চিহ্ন দেখা যায়নি। একটি ধারায় মৃত্যুদ-ণ্ডের পাশাপাশি তাদের ৫০ হাজার টাকা করে অর্থদ- দেয়া হয়। আরও দু‘টি ধারায় তাদের কয়েকজনকে দেয়া হয় বিভিন্ন মেয়াদের কারাদ-। মৃত্যুদ-প্রাপ্ত আসামিরা হলেন-গাইবান্ধার জাহাঙ্গীর আলম ওরফে রাজীব গান্ধী, নওগাঁর আসলাম হোসেন ওরফে আসলামুল ইসলাম ওরফে রাশেদ ওরফে র‌্যাশ, কুষ্টিয়ার আবদুস সবুর খান ওরফে সোহেল মাহফুজ ওরফে হাতকাটা মাহফুজ, জয়পুরহাটের হাদীছুর রহমান ওরফে সাগর, বগুড়ার রাকিবুল হাসান ওরফে রিগ্যান, একই জেলার মামুনুর রশীদ ওরফে রিপন ও রাজশাহীর শরিফুল ইসলাম ওরফে খালেদ। চাঁপাইনবাবগঞ্জের মিজানুর রহমান ওরফে বড় মিজানকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন আদালত। মামলার নথি থেকে জানা যায়, ২০১৬ সালের ১ জুলাই রাত পৌনে ৯টার দিকে ঢাকার হলি আর্টিজান রেস্তোরায় প্রবেশ করে হামলা চালায় ৫ জঙ্গি। তারা ভেতরে থাকা সবাইকে জিম্মি করে নির্মম হত্যাকা- চালায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে জঙ্গিদের হামলায় দুই পুলিশ কর্মকর্তা নিহত হন। জঙ্গিরা নির্মম ও নিষ্ঠুরভাবে হত্যা করেছিলো ২০ জন দেশি-বিদেশী নাগরিককে, যাদের মধ্যে ৯ জন ইতালীয়, ৭ জন জাপানী, ১ জন ভারতীয় ও ৩ জন বাংলাদেশী। যারা এই হামলা চালিয়েছিলো তারা ৫ থেকে ৬ মাস ধরে পরিকল্পনা করেছিলো। সেখানে হামলা চালানো জঙ্গিদের উদ্দেশ্য ছিল আন্তর্জাতিক জঙ্গিগোষ্ঠীগুলোর দৃষ্টি আকর্ষণ করা।