বাংলাদেশ সংবাদ

দুর্নীতির সূচকে বাংলাদেশের উন্নতি

বিশ্বের সবচেয়ে কম দুর্নীতির দেশ ডেনমার্ক ও নিউজিল্যান্ড। আর সবচেয়ে বেশি দুর্নীতির দেশ হিসাবে উঠে এসেছে সোমালিয়ার নাম। বৈশ্বিক দুর্নীতি ইনডেক্সে বাংলাদেশের অবস্থান ১৪তম। যা আগের চেয়ে উন্নতি। বার্লিনভিত্তিক ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল (টিআই) প্রকাশিত দুর্নীতির ধারণা সূচক (সিপিআই) ২০১৯ এ সর্বনিম্ন থেকে গণনা অনুযায়ী ২০১৮ সালের তুলনায় বাংলাদেশের অবস্থানের এক ধাপ উন্নতি হয়েছে। তবে স্কোর ২৬ অপরিবর্তিত রয়েছে। ২০১৯ সালের সিপিআই অনুযায়ী ৮৭ স্কোর পেয়ে যৌথভাবে সবচেয়ে কম দুর্নীতিগ্রস্ত দেশের তালিকার শীর্ষে অবস্থান করছে ডেনমার্ক ও নিউজিল্যান্ড। ৮৬ স্কোর পেয়ে তালিকার দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ফিনল্যান্ড এবং ৮৫ স্কোর নিয়ে তৃতীয় স্থানে যৌথভাবে রয়েছে সিংগাপুর, সুইডেন ও সুইজারল্যান্ড। আর সর্বনিম্ন ৯ স্কোর পেয়ে গতবারের মত এবারও তালিকার সর্বনিম্ন অবস্থান করছে সোমালিয়া। ১২ স্কোর নিয়ে নিম্নক্রম অনুযায়ী দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে দক্ষিণ সুদান এবং ১৩ স্কোর পেয়ে তালিকার তৃতীয় সর্বনিম্বে আছে সিরিয়া। ২০১৯ সালের সিপিআই অনুযায়ী বৈশ্বিক দুর্নীতি পরিস্থিতি উদ্বেগজনক। এবারের বৈশ্বিক গড় স্কোর ৪৩ হলেও সূচকে অন্তর্ভুক্ত ১৮০টি দেশের মধ্যে দুই-তৃতীয়াংশের বেশি দেশই ৫০ এর কম স্কোর পেয়েছে। এর মধ্যে ৬০টি দেশের স্কোরের উন্নতি হলেও এবার স্কোর অপরিবর্তিত রয়েছে ৫২টি এবং উদ্বেগজনকভাবে স্কোর কমেছে ৬৮টি দেশের। এবারের সিপিআই অনুযায়ী ৬৮ স্কোর এবং সর্বোচ্চ থেকে গণনা অনুযায়ী গতবারের মতই ২৫তম অবস্থান নিয়ে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে কম দুর্নীতিগ্রস্ত দেশ ভুটান।

সাড়ে চার মাসেই কুরআনের হাফেয

প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভালো ফলাফল ধরে রাখার সাথে সাথে হাফিযিয়া মাদরাসায় অধ্যয়ন করে মাত্র সাড়ে চার মাসেই হাফেয হওয়ার কৃতিত্ব দেখালো আব্দুল আউয়াল নামের ৯ বছরের এক শিশু। ফরিদগঞ্জ উপজেলা সদরস্থ জামালুল কুরআন হাফিযিয়া মাদরাসা থেকে এই কৃতিত্বের স্বাক্ষর রাখে। গত সমাপনি পরীক্ষায় সে সকল বিষয়ে শতভাগ নম্বর পাওয়ার কৃতিত্ব দেখিয়েছে। শিশু থেকেই তার মেধার পরিচয় পাওয়া যায়।