মুসলিম বিশ্ব


দরদী কণ্ঠের ক্বারী শেখ নুরাইন সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত

সুদানের বিখ্যাত ক্বারী শেখ নুরাইন মুহাম্মাদ ছিদ্দীক্ব এক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন। পবিত্র কুরআনের সবচেয়ে নিখুঁত ও দরদিকণ্ঠে তেলওয়াতকারীদের একজন ছিলেন তিনি। রাজধানী খার্তুমের জনবহুল ওমডুম্যান এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। এতে শেখ নুরাইন ছাড়াও কুরআনের আরও তিন হাফেযের প্রাণহানি ঘটেছে। তারা হলেন, আলী ইয়াকুব, আবদুল্লাহ আওয়াদ করীম ও মোহান্নাদ আল-কিনানী। আফ্রিকান দেশটির ধর্মমন্ত্রী নাসেরুদ্দিন মুফরেহ এক ফেসবুক পোস্টে তার নিহত হওয়ার খবর নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, শেখ নুরাইন ও তার সঙ্গে থাকা তিন কুরআনে হাফেযের মৃত্যুতে আমি শোকাহত। আদদুরি ক্বিরাআত বিশেষভাবে তেলওয়াতের জন্য বিশ্বজুড়ে তার খ্যাতি ছিল। তার মৃত্যুতে সামাজিক মাধ্যমে শোকের বন্যা বয়ে যাচ্ছে। মুসলিম ডেইলির এক টুইটার পোস্টে বলা হয়েছে, দুঃখজনকভাবে ক্বারী শেখ নুরাইন সড়কে নিহত হয়েছেন। আল্লাহ তাকে ক্ষমা করে দিন ও জান্নাত নছীব করুন।

মালয়েশিয়ায় হচ্ছে বিশ্বের একমাত্র
‘কুরআনিক ভিলেজ’

মালয়েশিয়ায় তৈরি হতে যাচ্ছে বিশ্বের একমাত্র ‘কুরআনিক ভিলেজ’। প্রকল্পটি বাস্তবায়নে ব্যয় হবে প্রায় ১৫০০ মিলিয়ন রিঙ্গিত এবং প্রায় ২০ একর জায়গা জুড়ে নির্মিত হবে এই মেগা প্রকল্পটি। সরকার এরইমধ্যে প্রকল্পটিতে নীতিগতভাবে অনুমোদন দিয়েছে। ২০২১ সালে এর কাজ শুরু হবে। এটি মুসলিম বিশ্বের একমাত্র প্রকল্প। প্রকল্পে থাকছে ৫ হাজার মুছল্লীর ধারণ ক্ষমতাসম্পন্ন একটি নতুন মসজিদ, একটি কুরআন বিজ্ঞান ও ভবিষ্যদ্বাণীমূলক জীবনীকেন্দ্র, একটি ছাত্রাবাস, অনুষ্ঠান আয়োজনের স্থান, একটি বাজার এবং একটি শিল্পকলা কেন্দ্র। এটি হবে বিশ্বের একমাত্র কুরআনিক ভিলেজ। কুরআনিক ভিলেজটি যথাক্রমে মালয়েশিয়া, কুয়েত, ইরাক, তুরস্ক, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও ব্রুনাইয়ের জন্য উৎসর্গীকৃত থাকবে বলে জানিয়েছেন আনোয়ার মূসা।