মুসলিম বিশ্ব


ফিলিস্তীনীদের ৭২৯টি ভবন গুঁড়িয়ে দিয়েছে ইসরাঈল

নির্মাণের অনুমতি না থাকার অজুহাতে গত বছর ৭২৯টি ফিলিস্তীনী ভবন গুঁড়িয়ে দিয়েছে ইসরাঈলী কর্তৃপক্ষ। মানবাধিকার বিষয়ক ইসরাঈলী সংস্থা বি’সলেম এমনই তথ্য জানিয়েছে। সংস্থাটির মতে, ইসরাঈল তাদের নীতিমালার অজুহাত দেখিয়ে ১০০৬ ফিলিস্তীনীকে উচ্ছেদ করেছে। ফিলিস্তীনীদের ২৭৩টি বাড়ি ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে। তারা বলছে, ইসরাঈল আবাসিক ৪৫৬টি কাঠামো ভেঙ্গে দিয়েছে। এছাড়াও ফিলিস্তীনীদের প্রয়োজনীয় মানবিক সুবিধা এবং পানি ও বিদ্যুতের লাইনও বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়েছে। বি’সলেম আরো বলছে, ইসরাঈলী দখলদার বাহিনী ২০২০ সালে সাত নাবালকসহ ২৭ জন ফিলিস্তীনীকে হত্যা করেছে। বি’সলেম পশ্চিম তীরে ফিলিস্তীনী হত্যার ১৬টি মামলার তদন্ত করে। তদন্তে দেখা যায়, নিহতদের মধ্যে কমপক্ষে ১১ জনকে বিনা বিচারে হত্যা করা হয়েছে। তারা কেউই নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য বা অন্যদের জীবননাশের হুমকির কারণ ছিল না বলেও সংস্থাটি জানিয়েছে। ফিলিস্তীনীদের বাড়িতে পাথর নিক্ষেপ করা থেকে শুরু করে কৃষক ও তাদের সম্পত্তিকে লক্ষ্য করে ৮০টির মতো গাছ ও অন্যান্য ফসলের ক্ষতি করেছে। যার ফলস্বরূপ তিন হাজারের বেশি গাছ নষ্ট হয়ে গেছে। ইসরাঈলী দখলদার হিনী ফিলিস্তীনী গ্রাম ও শহরগুলোতে কমপক্ষে তিন হাজারবার অভিযান চালিয়ে ২৪৮০টির মতো বাড়ি লন্ডভন্ড করেছে। বি’সলেম বলেছে, ২০২০ সালের মধ্যে দখলকৃত পশ্চিম তীরে ইসরাঈলীরা নিরাপত্তা বাহিনীর পাশাপাশি ৩৫৪৪টি চেকপয়েন্ট বসিয়েছে। ইসরাঈলী নিরাপত্তা বাহিনী কমপক্ষে ২৭৮৫ জন ফিলিস্তীনীকে বন্দী করেছে বলেও সংস্থাটি জানিয়েছে।

করোনাকালে আমিরাতে তিন হাজারেরও বেশি অমুসলিম ইসলাম গ্রহণ করলেন!

সংযুক্ত আরব আমিরাতে ইসলাম গ্রহণ করলেন তিন হাজারেরও বেশি অমুসলিম। মহামারি করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে বিশ্বে ধর্মচর্চা নিয়ে আগ্রহ বেড়েছে ঘরবন্দী মানুষের। এরই মধ্যে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ আমিরাতে তিন হাজারেরও বেশি অমুসলিমদের ইসলাম ধর্ম গ্রহণের খবর পাওয়া গেল। এ বছর ৩১৮৪ জন ইসলাম গ্রহণ করেছেন বলে জানিয়েছেন দুবাইয়ের মুহাম্মাদ বিন রশিদ সেন্টার ফর ইসলামিক কালচারাল। সেন্টারটির ডিরেক্টর হিন্দ মুহাম্মাদ লুতাহ এক ঘোষণায় জানান, করোনা পরিস্থিতির কারণে অনলাইনে এসব মানুষ ইসলাম গ্রহণ করেছে। সেন্টারটির ডিরেক্টর আরও জানান, প্রতিষ্ঠানটি ইসলাম সম্পর্কে সঠিক বার্তা প্রদান অব্যাহত রাখবে এবং দুবাইয়ে বসবাসকারী বিভিন্ন সম্প্রদায় এবং ভিন্ন বিশ্বাসীদের মধ্যে ইসলামের মহান নীতিগুলো ছড়িয়ে দেবে।