রামাযানে আল-আক্বছায় ইসরাঈলী হামলা

বিশ্বের সবচেয়ে নিপীড়িত অঞ্চলের একটি ফিলিস্তীন। ইয়াহূদীবাদী ইসরাঈলের নিত্যনতুন অত্যাচারে জর্জরিত ফিলিস্তীনীরা। বাড়ি থেকে উচ্ছেদ এবং কারণে-অকারণে গ্রেফতার নিত্যনৈমিত্তিক ঘটনা। তারই ধারাবাহিকতায় রামাযানের শুরুতেই আল-আক্বছায় ফজরের ছালাতে আসা মুছল্লীদের ওপর বিনা কারণে হামলা করে ইসরাঈলী বাহিনী। বিধিনিষেধ থাকা সত্ত্বেও আল-আক্বছা প্রাঙ্গণে প্রবেশ করে ইয়াহূদী উগ্রবাদীরা। তাদের হামলায় অন্তত ১৫২ ফিলিস্তীনী আহত হন। গ্রেফতার করে চার শতাধিক ফিলিস্তীনীকে। তারা মসজিদের ভেতরে মুহুর্মুহু টিয়ার গ্যাস ও রাবার বুলেট ছুঁড়েছে। মসজিদের ভেতর মনে হচ্ছে যেন যুদ্ধক্ষেত্র। সংবাদ মাধ্যমগুলোর দাবি, পবিত্র রামাযান মাস এলে আরও বেপরোয়া হয়ে ওঠে ইসরাঈল। গত ২২ মার্চ থেকে ইসরাঈলের ভেতরে ক্ষুব্ধ ফিলিস্তীনীদের হামলা বা ‘সশস্ত্র অপারেশন’ বেড়ে গেছে। এসব ঘটনায় ১৪ জন ইসরাঈলী নিহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে আছেন তিন জন ইসরাঈলী পুলিশ কর্মকর্তা। ফিলিস্তীনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত জানুয়ারি থেকে এখন পর্যন্ত ইসরাঈলী বাহিনীর হাতে ৩৬ ফিলিস্তীনী নিহত হয়েছেন।