মাটি থেকে অ্যান্টিবায়োটিক!

বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধে আমরা অ্যান্টিবায়োটিক খেয়ে থাকি। যা বিভিন্ন উপায়ে তৈরি হয়। কিন্তু এবার বিজ্ঞানীরা মাটির নমুনার ভেতরে নতুন অ্যান্টিবায়োটিকের সন্ধান পেয়েছেন। জটিল সংক্রমণের চিকিৎসায় প্রাকৃতিক উপাদানের মিশ্রণে এই অ্যান্টিবায়োটিকটি কাজে লাগানো সম্ভব হবে বলে মনে করা হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের রকফেলার বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা গবেষণায় নতুন এ দিগন্ত উন্মোচন করেছেন। সম্প্রতি, ‘ন্যাচার মাইক্রোবাইয়োলজি’ নামের একটি জার্নালে এ বিষয়ে নিবন্ধ ছাপা হয়েছে।

বর্তমান বিশ্বে মানুষ ক্রমাগত রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা হারিয়ে ফেলছে। শুধু তাই নয়, রোগ নিরাময়ে ওষুধ অনেক ক্ষেত্রেই ভূমিকা রাখতে পারছে না। সেক্ষেত্রে নতুন এই অ্যান্টিবায়োটিক বিশ্বের কোটি মানুষকে আশার আলো দেখাবে। এমনটাই অভিমত বিজ্ঞানীদের। তারা জানান, পরীক্ষা করে দেখা গেছে, মাটির ভেতরে থাকা ‘ম্যালাসিডিনস’ নামে অ্যান্টিবায়োটিক পরিবার নানা ধরনের সুপারবাগ ধ্বংস করতে পারে। এমনকি এতে ‘এমআরএসএ’-র মতো সুপারবাগও শেষ হয়ে যাবে। ইঁদুরের ত্বক সুপারবাগ ‘এমআরএসএ’ দ্বারা আক্রান্ত হলে নতুন এই অ্যান্টিবায়োটিক প্রয়োগ করা হয়। দেখা গেছে, তাতে কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ঘটেনি। তবে মানুষের শরীরে প্রয়োগের আগে আরো পরীক্ষার প্রয়োজন বলে জানান বিজ্ঞানীরা।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে