১ ঘণ্টায় পুরো পৃথিবী ঘুরে আসবে বিমান

ঘণ্টায় ১২ হাজার মাইল গতিবিশিষ্ট হাইপারসনিক বিমান তৈরি করছে চীন। এটি বাতাসে উড়বে শব্দের গতির চেয়ে ৫ গুণ বেশি গতিতে। এতে করে ১০ জন আরোহীকে এক ঘণ্টার মধ্যে বিশ্বের যেকোনো স্থানে নিয়ে যেতে পারবে ওই বিমান। ১৪৮ ফুট বা ৪৫ মিটার লম্বা এই বিমানটি হবে বোয়িং-৭৩৭ এর চেয়ে প্রায় এক-তৃতীয়াংশ বড়। চীনের কর্মকর্তারা আশা করছেন, ২০৩৫ সালের শেষ নাগাদ এই বিমান আকাশে উড়বে। ২০৪৫ সালের মধ্যে এর ধারণক্ষমতা বৃদ্ধি পেয়ে দাঁড়াবে ১০০ যাত্রীতে। তবে কী উদ্দেশ্যে এই বিমান তৈরি করা হচ্ছে, সে সম্পর্কে এখনও পরিষ্কার কোনো ঘোষণা দেওয়া হয়নি। মঙ্গল গ্রহ এবং চন্দ্র অভিযানের সঙ্গে জড়িত চীনের মহাকাশ বিজ্ঞানীদের এক গবেষণায় এই বিমানের আদিরূপ প্রকাশ করা হয়েছে। বিমানটি তৈরি করা হচ্ছে বোয়িং মান্তা এক্স-৪৭সি এর ডিজাইনে। এতে ব্যবহার করা হয়েছে দুটি আলাদা ইঞ্জিন। এর সঙ্গে নতুন এক এরোডিনামিক মডেল ব্যবহার করেছেন বিজ্ঞানীরা। তারা প্রমাণ করে দেখাতে চেয়েছেন, চীনের সর্বশেষ মহাকাশ মিশন কতটা কার্যকর। পরীক্ষায় তারা দেখতে পেয়েছেন এত গতিতে চলার ফলে বিমানটি অতিরিক্ত গরম হয়ে উঠবে। ফলে প্রযুক্তি ব্যবহার করে একে কার্যকর করার চেষ্টা হচ্ছে।